৯ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং | ২৫শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | দুপুর ২:১৫

প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুর খুনিদের পাশে রেখেছেন

নিউজ ডেস্কঃ  ঢাকা: ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্টে বঙ্গবন্ধুকে যারা নির্মমভাবে খুন করেছে তাদেরকে এখন প্রধানমন্ত্রী নিজের আশপাশে জায়গা করে দিয়েছেন বলে দাবি করেছেন বিএনপির  জ্যেষ্ঠ মহাসচিব রিজভী আহমেদ। এই খুনিদের থেকে প্রধানমন্ত্রীকে সর্তক থাকার পরামর্শও দিয়েছেন বিএনপির এই নেতা।

আজ বৃহস্পতিবার সকালে নয়াপল্টনে বিএনপি’র কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির পক্ষে দলটির মুখপাত্র জ্যেষ্ঠ মহাসচিব রিজভী আহমেদ এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর হত্যার পর যারা ডুগডুগি বাজিয়েছিলো তাদের আপনি মন্ত্রীসভায় গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় রেখেছেন। যে জেনারেল শফিউল্লাহর কাছে বঙ্গবন্ধু সাহায্য চেয়েছিলেন অথচ তিনি সেদিন বঙ্গবন্ধুকে প্রাচীর টপকে পালিয়ে যেতে বলেছিলেন, তাকেই আপনি পাশে রেখেছেন। অথচ আপনি এ কারণে বিএনপিকে দোষারোপ করছেন!’

রিজভী বলেন, ‘আপনার বাবার খুনিদের আপনিই আশ্রয়-প্রশ্রয় দিচ্ছেন। বঙ্গবন্ধুর রক্ত ডিঙ্গিয়ে আপনার মন্ত্রীসভায় স্থান করে নিয়েছেন তারা। তাদের কাছ থেকে সতর্ক থাকুন। বিএনপির প্রতি দোষারোপ করার বদলে দেশে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনুন। সহায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন দিন।’

বুধবার আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৩৭তম স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে সরকারি বাসভবন গণভবনে দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময়কালে প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন, জিয়া এবং মোস্তাকসহ বঙ্গবন্ধুর মন্ত্রিসভার অনেকেই ১৫ আগস্টের হত্যাকাণ্ডে জড়িত ছিলো। তাদের ঘরের শত্রু বিভীষণ উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ইতিহাস তাদের ক্ষমা করেনি। এর প্রেক্ষিতে বিএনপির এই নেতা উপরোক্ত কথা বলেন।
এছাড়া চালের মূল্যবৃদ্ধিতে বিএনপির কলকাঠি নাড়া বিষয়ে খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলামের বক্তব্য প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘বিএনপি কলকাঠি নাড়লে যদি চালের দাম বেড়ে যায়, তাহলে আপনারা সরকারে আছেন কেন? নিজেদের অকর্মণ্যতা আড়াল করতে অন্যের ঘাড়ে দোষ চাপানো আপনাদের স্বভাবজাত অভ্যাস।’

Leave a Reply

Your email address will not be published.