১২ই নভেম্বর, ২০১৯ ইং | ২৮শে কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | সকাল ৬:৩৪

হঠাৎ মিলন বন্ধ করলে মেয়েদের যে যে সমস্যা দেখা দেয়

নিউজ ডেস্ক: সামাজিক, অর্থনৈতিক, পারিবারিক ইত্যাদি বিভিন্ন কারণেই একজন নারীর যৌন সঙ্গির সাথে বিচ্ছেদ ঘটতে পারে। স্বামীবিয়োগ, বিবাহবিচ্ছেদ, ব্রেকআপ বা অন্য শহরে চাকরি, এধরনের নানাবিধ কারণে যৌনতা হারিয়ে যেতে পারে নারীর জীবন থেকে। এতে অনেক সময় ক্ষতিগ্রস্থ হয় নারী শরীর।

সর্দি কাশি প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে যায় : সেক্স করলে শরীরে রোগ-জীবাণুর প্রবেশ কষ্টকর হয়ে ওঠে। অর্থাৎ, শরীরে রোগপ্রতিরোধ শক্তি গড়ে ওঠে। পেনসিলভেনিয়ার উইলকিস-বারে বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকদের মত, সপ্তাহে অন্তত দু’বার সেক্স করলে ইমিউনোগ্লোবিন অ (ছোটো করে বললে, ওমঅ। এই হরমোনের নিঃসরণ শরীরে রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়) হরমোনের পরিমাণ ৩০% বাড়িয়ে দিতে পারে। ফলে সর্দি, কাশি, জ্বর হওয়ার প্রবণতা কমে যায়। কিন্তু সেক্স করা হঠাৎ বন্ধ হয়ে গেলে কমজোরি হয়ে পড়ে নারীশরীর। সর্দি, কাশির সমস্যা শুরু হয়।

সেক্স করার ইচ্ছে চলে যেতে পারে : যাঁরা মনে করেন, নিয়মিত সেক্স করার অভ্যাসে একবার দাঁড়ি বসলে, কামনা-বাসনার লাগাম ছাড়িয়ে যায়। তা হলে তাঁরা ভুল জানেন। সেক্স করা হঠাৎ বন্ধ হয়ে গেলে, মিলিত হওয়ার বাসনা কমে যায়। এটা মহিলাদের ক্ষেত্রে বেশি প্রযোজ্য। শরীরে উত্তেজনা লোপ পেতে শুরু করে। একটা সময় পর আর কামেচ্ছা জাগে না।

হৃদয় হার মানতে শুরু করে হরমোনের কাছে : দেশ-বিদেশের বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষা বলছে, সেক্স করলে হৃদয় ভালো থাকে। হরমোনের নিঃসরণ যথাযথ পরিমাণে হতে থাকে। কিন্তু অনেকদিন সেক্স বন্ধ থাকলে হৃদযন্ত্রে নেতিবাচক সমস্যা তৈরি করতে পারে। শরীর কমজোরি হয়ে পড়ে। নিয়মিত এক্সারসাইজ় করলে বা ট্রেডমিলে দৌড়ালেও লাভ হয় না।

বুদ্ধি কমে যায় : নিয়মিত সেক্স করা শুরু করলে, সেটা যদি হঠাৎ বন্ধ হয় যায়, তবে বুদ্ধি লোপ পেতে পারে। সারাক্ষণের ক্লান্তি, হতাশা মস্তিষ্কে নেতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারে। যার ফলে সবচেয়ে বেশি প্রভাবিত হয় স্মরণশক্তি। সবকিছু ভুলে যাওয়ার সমস্যা তৈরি হতে থাকে। আর এর জন্য দায়ি একমাত্র সেক্স থেমে যাওয়া।