১২ই নভেম্বর, ২০১৯ ইং | ২৮শে কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | সকাল ৭:১৩

৭ বছরের শিশুর মাড়িতে ৫২৬টি দাঁত!

শিরোনাম পড়ে অবাক হচ্ছেন? অবাক হওয়ার মতই কথা। শিশুর মাড়িতে কি করে ৫২৬টি দাঁত থাকতে পারে? তবে আজব মনে হলেও এমনটাই ঘটেছে ভারতের চেন্নাইয়ে।

খবর দ্য ওয়ালের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, তার বয়স মাত্র ৭, দাঁত পাওয়া গেল ৫২৬ টি! ছোট্ট ছেলেটির যখন মাত্র তিন বছর বয়স, তখন থেকেই তার ডানদিকের মাড়ি থেকে রক্ত বের হতো। এ নিয়ে ঐ শিশুর মা বাবা প্রথমদিকে বিশেষ গুরুত্বও দেননি। ধীরে ধীরে সমস্যা বেড়ে চলছে দেখে তাকে ডেন্টাল কলেজে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে ডাক্তার পরীক্ষা করে শিশুটর মাড়ি কেটে রীতিমতো দাঁতের খনি বরে করে, একে একে ৫৩৬টি দাঁত উদ্ধার করা হয়।

জানা গেছে, এটি ‘compound composite ondontome’-এর কেস। ছোটবেলায় যখন সমস্যা শুরু হয়েছিল, তখনই তার মা বাবা তার চিকিৎসা শুরু করলে এতটা সমস্যা হত না। চেন্নাই ডেন্টাল কলেজের ওরাল অ্যান্ড ম্যাক্সিলোফেসিয়াল সার্জারি ডিপার্টমেন্টের অধ্যাপক পি. সেন্থিলনাথান বলেন, প্রথমে শিশুটির ডান চোয়ালের একটি এক্স-রে করা হয়। এরপর হয় সিটি-স্ক্যানও। তাতেই ধরা পড়ে ভেতরে বেশ কয়েকটা দাঁত রয়েছে। কিন্তু ঠিক কতগুলো এক্স-রে বা স্ক্যানে তা স্পষ্ট হয়নি। সে সময়ে তাঁরা সিদ্ধান্ত নেন ওর অপারেশন করা হবে।

অ্যানাস্থেশিয়ার পরে যখন ছেলেটির ডানদিকের মাড়ি কাটা হয়, সেখানে প্রায় ২০০ গ্রামের একটি দাঁতের থলি পাওয়া যায়। খুব সাবধানে সেটা বের করে আনা হয়। তার মধ্যে ছোট্ট ছোট্ট মুক্তোর আকারে ৫২৬ টি দাঁত পাওয়া যায়! বেশ কয়েকটা খুবই ছোট হলেও সেগুলো কিন্তু পুরোদস্তুর দাঁতই। প্রায় পাঁচ ঘণ্টা ধরে এই উদ্ধার কাজ চলে। হাসপাতালের ওরাল অ্যান্ড ম্যাক্সিলোফেসিয়াল প্যাথোলজির হেড প্রতিভা রামানি বলছেন, শিশুটি এখন সুস্থ আছে। অপারেশনের পর তাকে তিন দিন অবসার্ভেশনে রাখা হয়েছিল। সবিতা ডেন্টাল কলেজের ডাক্তাররা দাবি করছেন, এধরনের সার্জারি এই প্রথম হল বিশ্বে। এভাবে কোনও একটি মানুষের এতগুলো দাঁত কখনও এর আগে অপারেশন করে কোনও চিকিৎসক বের করেননি।