২০শে নভেম্বর, ২০১৯ ইং | ৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | রাত ১:২৭

আবাহনী হারতে চায় না

নিউজ ডেস্কঃ  ম্যাচের আগে সংবাদ সম্মেলনে হাত মেলাচ্ছেন আবাহনী ও বেঙ্গালুরু এফসির দুই কোচ ও অধিনায়ক। মাঠে অবশ্য দুই দলের পারফরম্যান্সে বিস্তর ফারাক। ঘরের মাঠে আবাহনী পারবে সেই ব্যবধান ঘোচাতে?
সব হারিয়ে যেন দেয়ালে পিঠ ঠেকে গেছে তাদের। আর হারতে চায় না ঢাকা আবাহনী। হারের বৃত্ত ভেঙে বেরিয়ে আসার ম্যাচে আজ আকাশি-নীলরা মুখোমুখি হবে এএফসি কাপে ‘ই’ গ্রুপের শীর্ষ দল বেঙ্গালুরু এফসির। বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে ম্যাচটা শুরু হবে আজ সন্ধ্যা ৬টা ১০ মিনিটে।
টানা তিন ম্যাচ হেরে স্বাগতিকদের সব সম্ভাবনা ধুয়ে-মুছে না গেলেও কেবল টিকে আছে গণিতের হিসাবে। সেটাও বড্ড কঠিন। তাই আবাহনী একটু সম্মান আর ঘরোয়া মৌসুম শুরুর আত্মবিশ্বাস নিতে চায় এই ম্যাচ থেকে। অধিনায়ক মামুন মিয়া তা স্পষ্ট করেই দিয়েছেন, ‘এখন আমাদের আর হারানোর কিছু নেই। বাস্তবতা হলো এএফসি কাপে আমাদের সে রকম সম্ভাবনা নেই। সামনে ফেডারেশন কাপ আছে, সেটার দিকে আমরা তাকিয়ে আছি। আমাদের কাজ হচ্ছে এই ম্যাচে সেরাটা দিয়ে জেতার চেষ্টা করা। ’ ম্যাচটা জিতলে তো অনেক বড় ব্যাপার হবে, ড্র হলেও আসন্ন ফুটবল তাদের আত্মবিশ্বাসের বড় উৎস হবে ম্যাচটি। ১২ মে ফেডারেশন কাপ দিয়ে ঢাকার মৌসুম শুরুর কথা। ইনজুরিসহ ভিসা জটিলতার কারণে আবাহনী গত দুই ম্যাচে সেরা একাদশ বাছাই করতে না পারলেও আজ দলে ফিরছেন তৃতীয় বিদেশি ঘানাইয়ান ডিফেন্ডার সামাদ ইউসিফ। ইনজুরি থেকে সেরে উঠেছেন ইমন বাবুও, সুবাদে মাঝমাঠের সমস্যাও আগের মতো প্রকট থাকার কথা নয়। আবাহনী কোচ দ্রাগো মামিচও এই ম্যাচে ভালো লড়াইয়ের স্বপ্ন দেখছেন, ‘কালকের ম্যাচে কয়েকটি পরিবর্তন থাকবে। ইমন বাবু ফিরবে মাঝমাঠে, সামাদও খেলবে। তা ছাড়া প্রত্যেক খেলোয়াড়ের ফিটনেস বেড়েছে। তাই আরো প্রতিদ্বন্দ্বিতা আশা করছি ম্যাচে, তবে আমাদের আরো নিখুঁত হতে হবে। ’

ঘরের মাঠে প্রতিদ্বন্দ্বিতা বাড়লেও পয়েন্ট নেওয়া কঠিন হবে সুনীল ছেত্রীর বেঙ্গালুরু এফসির কাছ থেকে। ওদের মাঠে ০-২ গোলে হেরে ফেরা আবাহনীর জন্য কঠিন বার্তা দিয়েছেন বেঙ্গালুরু এফসির কোচ আলবার্তো রোকা পুয়োল, ‘এখানে জেতার জন্য আমরা সর্বোচ্চ চেষ্টা করব। আবাহনী সম্পর্কে সব তথ্য আমাদের জানা। প্রতিপক্ষের মাঠে জেতা সব সময় কঠিন, কারণ দলগুলোর শক্তির পার্থক্য বেশি নয়। কিন্তু আমাদের প্রত্যাশা অনেক বেশি এ টুর্নামেন্টে, গতবারের ফাইনালিস্ট হিসেবে কালকের (আজ) ম্যাচ জিতে আমরা পরের রাউন্ড নিশ্চিত করতে চাই। ’ ভারতের ঘরোয়া ফুটবলে টানা ছয় ম্যাচ জিতে তারা এখানে এসেছে। আগের ম্যাচে আবার গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়দের বিশ্রামও দেওয়া হয়েছে। মালদ্বীপের মাঠে গিয়ে অ্যাওয়ে ম্যাচ জিতে আসা ভারতীয় এই ক্লাব দলকে আবাহনী কোচ দ্রাগো মামিচ যথেষ্ট সমীহ করছেন, ‘বেঙ্গালুরু এফসি এশিয়ার অন্যাতম সেরা ক্লাব। অন্যদিকে গত মৌসুমে অন্তত ১০ জন খেলোয়াড় হারিয়ে আবাহনী একরকম নতুন দল হয়েছে। আমাদের প্রস্তুতিও ভালো ছিল না। এটাই স্বাভাবিক যে তাদের লেভেলে আমরা উঠতে পারব না। আমার চাওয়া হলো, খেলোয়াড়দের পারফরম্যান্সের উন্নতি। ’ আজও আবাহনী কোচ উন্নতি দেখার প্রত্যাশায় মাঠে যাবেন, তাতে যদি অন্তত একটি পয়েন্ট মিলে যায় !

Leave a Reply

Your email address will not be published.