২৫শে জানুয়ারি, ২০২০ ইং | ১১ই মাঘ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | দুপুর ২:০৯

রংপুর সিটি তে নির্বাচনের ভোট চলছে

নিউজ ডেস্কঃ রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনের ভোট গ্রহণ চলছে। বৃহস্পতিবার সকাল ৮টায় শুরু হওয়া ভোট গ্রহণ একটানা চলবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত।

 

নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের সরফুদ্দীন আহমেদ ঝন্টু, জাতীয় পার্টির মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা ও বিএনপির কাওসার জামান বাবলাসহ মোট সাতজন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

 

সকাল পৌনে ৮টায় রংপুর সিটি করপোরেশনের ২৯ নম্বর ওয়ার্ডের দেওয়ানটুলি সরকারি বিদ্যালয় কেন্দ্রে গিয়ে দেখা গেছে, কেন্দ্রের বাইরে ভোটার এবং উৎসুক মানুষের ভিড়। মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীদের পোস্টারে পোস্টারে ছেয়ে গেছে পুরো এলাকা।

 

কেন্দ্রের বাইরে ভোট দেওয়ার জন্য অপেক্ষা করছিলেন আলী আজগার। তিনি বলেন, ‘সকাল সাড়ে ৭টায় কেন্দ্রে এসেছি। সকাল ৮টার পর ভোট গ্রহণ শুরু হয়। আমিই প্রথম ভোটটি দিয়েছি । ভালোই লাগছে, উৎসব-উৎসব পরিবেশ।’

 

রংপুর সরকারি বালিকা বিদ্যালয় কেন্দ্রে কথা হয় নবিতা দাস ও ছালমা বেগমের সঙ্গে। তারা ভোট দেওয়ার জন্য লাইনে দাঁড়িয়ে ছিলেন। তারা বলেন, ‘আজ হচ্ছে ভোট উৎসব। নাস্তা খেয়ে সকাল সকাল চলে এলাম ভোট কেন্দ্রে। তা না হলে বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ভোটারদের উপস্থিতি বেড়ে যাবে। তাই ফাঁকা ফাঁকাই ভোটটা দিতে এলাম।’

 

রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে পরীক্ষামূলকভাবে একমাত্র রংপুর সরকারি বেগম রোকেয়া কলেজ কেন্দ্রে ইভিএমে ভোট গ্রহণ করা হচ্ছে। সকাল সাড়ে ৮টায় সেখানে গিয়ে ভোটারদের তেমন একটা ভিড় পরিলক্ষিত হয়নি। ভোটার জাভেদ আলী বলেন, ‘আমরাই সৌভাগ্যবান যে ইভিএম এ ভোট দিতে পারছি। কারণ রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে একমাত্র এ কেন্দ্রেই ইভিএমে ভোট চলছে।’

 

সরকারি বেগম রোকেয়া কলেজ কেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসার আজহারুল ইসলাম দুলাল জানান, এই কেন্দ্রে ইভিএমে ভোট চলছে। এ বিষয়ে আগেই ভোটারদের হাতে-কলমে শেখানো হয়েছে।

 

তিনি জানান, কেন্দ্রটিতে ভোটার সংখ্যা দুই হাজার ৫৯ জন। ছয়টি বুথে বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা থেকে ভোট গ্রহণ চলছে। সকাল থেকেই ভোটাররা এসে ভোট দিয়ে যাচ্ছেন। পুরুষ ভোটারদের চেয়ে মহিলা ভোটাররাই আসছেন বেশি। তবে শহরের কেন্দ্র হওয়ায় ভোটাররা একটু দেরিতে ভোট দিতে আসছেন।

 

শহরের লায়ন্স স্কুল ও কলেজ কেন্দ্রে কথা হয় ভোটার আবদুস সাহেদ ও রোজিনা বেগমের সঙ্গে। তারা বলেন, ‘ভোটের দিন আমরা সকাল সকাল এসে ভোট দিয়ে যাই। বেলা বাড়তে থাকলে ভোটারের উপস্থিতিও বাড়তে থাকে। তাই ভিড় বাড়ার আগেই ভোটটি দিয়ে গেলাম।’

 

নির্বাচন কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, রংপুর সিটি করপোরেশনের ১৯৩টি কেন্দ্রের ১১৭৮টি ভোটকক্ষে বৃহস্পতিবার সকাল ৮টায় নির্ধারিত সময়েই ভোট শুরু হয়।

 

ভোট শুরুর পর এখন পর্যন্ত কোথাও কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি।

রংপুর আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং কর্মকর্তা সুভাষ চন্দ্র সরকার জানান, সকাল থেকেই উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে শান্তিপূর্ণভাবে ভোট গ্রহন চলছে। কোথাও কোনো অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি।

 

রংপুর নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মোট ভোট কেন্দ্র ১৯৩টি। এরমধ্যে ঝুকিপুর্ন কেন্দ্র ১০৮টি। ঝুকিপুর্ন কেন্দ্রে ২৪ জন পুলিশ ও আনসার নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করছেন। এদের মধ্যে ১২ জনই অস্ত্রধারী। আর সাধারণ কেন্দ্রে ২২ জন করে নিরাপত্তার দায়িত্বে রয়েছেন। এছাড়া ২১ প্লাটুন বিজিবি এবং র্যা বের ৩৩টি টিম নির্বাচনী মাঠে কাজ করছে। নির্বাচনে ৩৩ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এবং ১১ জন জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট দায়িত্ব পালন করছেন। এছাড়াও সিটি করপোরেশন এলাকাকে চারটি ভাগে ভাগ করে চার জন ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তার নেতৃত্বে দায়িত্ব পালন করছেন পুলিশ সদস্যরা।

 

রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ৩৩টি ওয়ার্ডে মেয়র পদে ৭ জন, কাউন্সিলর পদে ২১১ জন এবং সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে ৬৫ জন প্রতিদ্বদ্বিতা করছেন। ২০৩ বর্গ কিলোমিটার এলাকার এ সিটিতে মোট ভোটার সংখ্যা ৩ লাখ ৯৩ হাজার ৯৯৪ জন।