১২ই নভেম্বর, ২০১৯ ইং | ২৮শে কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | সকাল ৬:৫৬

বিজ্ঞানের ক্ষেত্রে ২০১৮ সালে যা হবে

নিউজ ডেস্কঃ গত দু’দশকের মধ্যে বিজ্ঞান এগিয়ে গেছে বহুদূর! বিশেষ করে তথ্য প্রযুক্তি এবং মহাকাশ গবেষণায় গত ক’বছরে মিলেছে অকল্পনীয় অগ্রগতি। তথ্য প্রযুক্তির উৎকর্ষতায় প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষের কাছেও পৃথিবী চলে এসেছে হাতের মুঠোয়। এছাড়া মহাকাশ গবেষণাতেও গত ক’বছরে বেরিয়ে এসেছে চমকপ্রদ সব তথ্য।

 

আসছে বছর অর্থাৎ ২০১৮ সালেও বিজ্ঞানের এই ধারাবাহিকতা চলমান থাকবে বলেই বিজ্ঞানীদের আশা। তথ্য প্রযুক্তি তো এগিয়ে থাকবেই, মহাকাশ গবেষণা এবং চিকিৎসা বিজ্ঞানেও আগামী বছর বেশ কিছু উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি দেখা যাবে বলে বিশ্বাস বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্লেষকদের।

 

গবেষকদের মতে, বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের শক্তিধর রাষ্ট্রগুলো আসছে বছরে বেশ কিছু ইতিহাস সৃষ্টি করার মতো ঘটনা ঘটাবে। এই ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশের নামও রয়েছে। ২০১৮ সালে পৃথিবীর কক্ষপথে স্থান পেতে যাচ্ছে বাংলাদেশের প্রথম নিজস্ব স্যাটেলাইট ‘বঙ্গবন্ধু-১’।

 

বিশ্লেষকদের মতে আগামী বছর বিশ্বের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিতে কি কি যুক্ত এবং পরিবর্তন হতে যাচ্ছে তা জেনে নিন।

১. আগামী বছর অর্থাৎ ২০১৮ সালে ভারত প্রথমবারের মতো চাঁদে অভিযান চালাবে।

২. বিজ্ঞানীরা ওই বছর মানুষের জেনেটিক নকশায় পরিবর্তন আনার ক্ষেত্রে গবেষণা জোরদার করবে। মানুষের রোগের জন্য দায়ি ভাইরাসকে প্রতিহত করতে বিজ্ঞানীরা ডিএনএ’র সঙ্গে ‘CRISPR’এর জেনম যুক্ত করতে পারেন।

৩. এ বছর মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা মঙ্গলগ্রহের অজানা অঞ্চলে রোবটযান পাঠাবে।

৪. আগামী বছর বিজ্ঞানীরা খাদ্যের উপর চাপ কমাতে সমুদ্রের খাবারের জনপ্রিয়তা বৃদ্ধির উপর জোর দেবেন।

৫. ডায়াবেটিক রুগীদের জন্য সামনের বছরে সুসংবাদ আসতে পারে। টাইপ ১ ধরনের ডায়াবেটিস পুরোপুরি নির্মূলে বিজ্ঞানীরা কার্যকর ওষুধ আবিস্কার করতে পারেন।

৬. সামনের বছর পৃথিবীর জনসংখ্যা ৭৬০ কোটি ছাড়িয়ে যাবে বলে আশঙ্কা করছেন বিজ্ঞানীরা।

৭. ডিজিটাল মুদ্রা বিটকয়েনের দাম ২০১৮ সালে আবারও বৃদ্ধি পেতে পারে। বিশেষজ্ঞদের মতে প্রতিটি বিটকয়েনের দাম ৬০ হাজার ডলার পর্যন্ত হতে পারে।

৮. পৃথিবীর গঠন সম্পর্কে জানতে বিজ্ঞানীরা বড় ধরনের সুরঙ্গ খননের কাজ চালাতে পারে।

৯. সামনের বছরটিতে বিদ্যুৎ চালিত গাড়ির প্রতি মানুষের আগ্রহ বৃদ্ধি পাবে বলে বিশ্লেষকেরা মনে করছেন। তাদের মতে, এই বছরটিতে বৈদ্যুতিক গাড়ি বিক্রির সংখ্যা অর্ধকোটি ছাড়াবে।

১০. সামনের বছরে নিউজিল্যান্ড কয়লা ভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র থেকে পুরোপুরি সরে আসবে। ২০১৮ সালে দেশটির সর্বশেষ কয়লা বিদ্যুৎ প্রকল্প বন্ধ করে দেয়া হবে।

১১. চিকিৎসা বিজ্ঞানেও সামনের বছরটিতে পরিবর্তন দেখা যাবে। বিভিন্ন জটিল অস্ত্রোপচারের কাজে রোবটের সাহায্য নেবেন চিকিৎসকেরা।

 

১২. আসছে বছর পৃথিবীর উপগ্রহ চাঁদে মানুষ বিহীন যান পাঠাবে জাপান। এছাড়া রাইগু (Ryugu) গ্রহাণুতে হায়াবুসা-২ (Hayabusa-2) মহাকাশযান পাঠাবে দেশটি।

১৩. সামনের বছর সাধারণ মানুষের জন্য ওয়াই ফাই সুবিধা আরও বৃদ্ধি পাবে। বিজ্ঞানীদের মতে, প্রতি ২০ জনের জন্য একটি ওয়াই-ফাই হটস্পট সুবিধা মিলবে।

১৪. জন্মনিরোধে পুরুষদের এগিয়ে আসতে বেশি দেখা যাবে বলে বিজ্ঞানীরা মনে করছেন। কেননা, আসছে বছরে পুরুষদের জন্য এ সংক্রান্ত পণ্য বেশি সহজলভ্য হবে।

 

১৫. বুধ গ্রহে অভিযান চালাতে ২০১৮ সালে মহাকাশযান পাঠাবে ইউরোপ এবং জাপান।

১৬. সামনের বছরে বিশ্ব থেকে পোলিও রোগ সম্পূর্ণ নির্মূল হয়ে যাবে।

১৭. ২০১৮ সালে তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহারকারীদের মধ্যে ভিডিও দেখার প্রবণতা বৃদ্ধি পাবে বলে মনে করছেন বিজ্ঞানীরা। প্রায় ৮৪ ভাগ ব্যবহারকারী অন্য সব কিছুর তুলনায় ভিডিও’র প্রতি বেশি আগ্রহী হবেন বলে বিশ্লেষকদের ধারণা।

১৮. আসছে বছর চাঁদের অদেখা এলাকা বা কালো অংশে মহাকাশযান পাঠাবে চীন।

১৯. মানুষের বার্ধক্য রোধে গবেষণার মাত্রা আরও বৃদ্ধি করবেন বিজ্ঞানীরা। এবং

২০. সামনের বছর যানজট রোধে নতুন গাড়ি নিবন্ধন সম্পূর্ণ বন্ধ করে দেবে সিঙ্গাপুর।