১৯শে অক্টোবর, ২০১৮ ইং | ৪ঠা কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | সকাল ১০:৩৯

মানবতার এক অনন্য দৃষ্টান্তের নাম এস, আই মিল্টন কুমার দেবদাস

স্টাফ রিপোর্টার: কুষ্টিয়া জেলার কুমারখালী থানার এক সাহসী ও নির্ভীক পুলিশ অফিসার এস,আই মিল্টন কুমার দেবদাস। সততা ও নিষ্ঠার সাথে যেমনি তিনি দায়িত্ব ও কর্তব্য পালন করে আসছেন ঠিক তেমনি একজন অসহায় মানুষের জন্য মানবতার এক অরণ্য দৃষ্টান্ত তিনি নিজেই। আজ দুপুরে একটি প্রতিবন্ধী অসহায় ছেলে কুমারখালী পৌর শহরে বিভিন্ন পথে পথে ও দোকানে ঘুরে ভিক্ষা করতে থাকে । প্রতিবন্ধী হওয়ার দরুন ঠিকমতো হাঁটতে পারছে না সেই ছেলেটি, একটি লাঠির উপর ভর করে হাতে একটি ব্যাগ নিয়ে কোন মত আস্তে আস্তে হেঁটে ভিক্ষা করছিল সে।

 

কুমারখালী থানার উপ-পরিদর্শক এস,আই মিল্টন কুমার দেবদাসের নজরে আসে প্রতিবন্ধী ছেলেটি । তাৎক্ষণিক ভাবে কাছে গিয়ে উপস্থিত হন তিনি। ছেলেটির সার্বিক বিষয়ে খোঁজ-খবর নিতে থাকে। এবং তার নিজ মোটরসাইকেলে বসিয়ে একটি খাবারের হোটেলের নিয়ে যায় তাকে। তিনি ছেলেটির কাছে জানতে চাইলেন সকাল থেকে কিছু খেয়েছো কি-না, ছেলেটি জবাবে বলে না সকাল থেকে তেমন কিছু খাই নাই, তখন তিনি ছেলেটির হাত ধরে খাবার হোটেলের ভেতরে নিয়ে গিয়ে বসান। পুলিশ অফিসার এস,আই মিল্টন কুমার দেবদাস ছেলেটির পছন্দের খাবারের মেনু গুলো অর্ডার করে তাকে খাওয়ান। পরে তৃপ্তি মিটিয়ে খাবার গুলো খাইতে থাকে সেই প্রতিবন্ধী ছেলেটি।

 

এ যেন মানবতার এক অনন্য দৃষ্টান্ত। পরে আবারো তিনি তার মোটরসাইকেলে চড়িয়ে বাস স্টান্ডে নিয়ে জান।পরে নিজে বাসে তুলে দিয়ে তার বাড়ি ফেরার ব্যবস্থা করে দেন। মানুষের মধ্যে এখনো অনেক খারাপ ধারণা রয়েছে, অনেকে ভাবে পুলিশ মানেই খারাপ কিন্তু না, এখনো আমাদের দেশে এমনও পুলিশ অফিসার আছে যারা নিজের খাবারের একাংশ অসহায় ও গরীবদের মুখে তুলে দেয়। ঠিক তেমনি একজন সাহসী ও নির্ভীক পুলিশ অফিসার এস,আই মিল্টন কুমার দেবদাস। তিনি কুমারখালী গর্ব নয় তথা সারা বাংলাদেশের গর্ব ।

 

এস,আই মিল্টন কুমার দেবদাস কুমারখালী থানায় যোগদানের পর থেকে মাদক ও সন্ত্রাস দমন, ওয়ারেন্ট তামিল সহ নিষ্ঠা ও সততার সাথে দায়িত্ব পালন করায় টানা সাত বারের মত পারফরম্যান্সে সেরা অফিসার মনোনিতো হয়ে পুরস্কৃত হোন তিনি।