১৯শে অক্টোবর, ২০১৮ ইং | ৪ঠা কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | সকাল ১১:৫৯

কুমারখালীতে ৭ বছরের শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টা করে পাশের বাড়ির জামাই লম্পট উজ্জ্বল

কুষ্টিয়া কুমারখালী জগন্নাথপুর ইউনিয়নের বাকসি সাতপাখিয়া গ্রামের দিনমজুর ৭ বছরের শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টা করছে পাশের বাড়ির লম্পট জামাই উজ্জ্বল (৪২) অভিযোগে পাওয়াগেছে।
ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার বেলা ৩ টার সময়। কুমারখালী হাসপাতাল ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, বাকসি সাতপাখিয়া গ্রামের বিশের জামাই ও লুলুর স্বামী লম্পট জামায় উজ্জল (৪২), শিশু লিমা ৭ (ছদ্দো নাম) কে ১০ টাকা দিবে বলে বাড়ির পাশে গোরস্থানের পাশে নিয়েগিয়ে প্যান্ট খুলে ধর্ষণের চেষ্টা করে। ভয়ে শিশুটি চিৎকার দিলে পাশের বাড়ি লোকেরা এসে পড়লে লম্পট জামাই ঘটনা স্থল থেকে পালিয়ে যায়।

 

শিশুটি ভয়ে বাড়িতে এসে মায়ের কাছে উক্ত ঘটনা বলেদদেয়। তাৎক্ষণিক গরিব দিন মজুর বাবা -মা মেয়েকে কুমারখালী হাসপাতালে জরুরী বিভাগে আনলে কর্তব্যরত ডাক্তার ফাইজুল করিম রাব্বী জানান প্রাথমিকে শিশুটির বক্তব্য ও আলামত এবং যৌনিদ্বার দেখে ধর্ষণের চেষ্টার প্রমান পাওয়া গেছে। শিশুটি উপস্থিত ডাক্তার ও সাংবাদিকদের জানান, তার যৌনিদ্বারে লম্পট উজ্জল হাত দিয়েছে, এবং খারাপ ছবি মোবাইলে দেখিয়েছে।

 

এ ব্যাপারে কুমারখালী থানা তদন্ত কর্মকর্তা মোঃ শফিকুর রহমান শিশুটির অবস্থা দেখেন ও ঘটনা তদন্তে বাকসি সাতপাখিয়া গ্রামে রওনা হয়েছেন। এদিকে শিশুটির বড় ভাই সৈয়দ ইসলাম সাংবাদিকদের জানান, ন্যায় বিচারের জন্য আমি মামলা করবো। এ রিপোট লেখা পর্যন্ত থানায় মামলা হয়নি।

 

অপরদিকে অভিযুক্ত লম্পট জামাই উজ্জলের সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করলে তার মোবাইল বন্ধপাওয়া যায়।
এ বিষয়ে কুমারখালী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ শাহীনুজ্জামান এর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ডিজিটাল মেলা কুষ্টিয়া অনুষ্ঠানে আমি রয়েছি। শিশু ধর্ষনের চেষ্টার বিষয়ে আমি কোন কিছু জানি না।